Sunday, May 19, 2024
মূলপাতাকৃষি সংবাদকালবৈশাখী ঝড়ের সাথে গরম বাতাসে বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতি

কালবৈশাখী ঝড়ের সাথে গরম বাতাসে বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতি

হুমায়ুন কবির, কেন্দুয়া: হঠাৎ কালবৈশাখী ঝড়ে নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে হাওরে হাইব্রিড জাতের বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। স্থানীয় কৃষক জানান,রোববার বিকালে হঠাৎ কালবৈশাখীর ঝড়ের সময় গরম বাতাস শুরু হয়, এই গরম বাতাসের ফলে হওরের হাইব্রিড জাতের বোরো জমির ধানের শীষ সাদা হয়ে গেছে।

এ বিষয়ে কান্দিউড়া ইউনিয়নের দীঘলকুর্শা গ্রামের কৃষক সেলিম মিয়া জানান,গতকাল রোববার বিকালে থেকে শুরু হওয়া কালবৈশাখীর গরম বাতাসে তাদের জমির ধান পুড়ে গিয়েছে। এছাড়াও আব্দুল সালাম নামে আরেক কৃষক জানান, দক্ষিণা গরম বাতাসে হাইব্রিড জাতের ধান পুড়ে গিয়েছে তাই তিনি সরকারের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এছাড়াও জাহিম মিয়া নামে এক কৃষক জানান, কান্দিউড়া ইউনিয়নের তারাকান্দিয়া- দীর্ঘলকুশা গ্রামের প্রায় দুই শতাদিকের উপর কৃষকের জমির হাইব্রিড জাতের ধান গরম বাতাসে পুড়ে গিয়েছে।

এ ছাড়াও উপজেলার ১৩ টি ইউনিয়ন ও একটি পৌর সভাসহ, রোববার বিকাল থেকে শুরু হয়ে রাত পর্যন্ত চলা কালবৈশাখী ঝড়ের সময় গরম বাতাসে হাইব্রিড জাতের ধানের শীষ সাদা হয়ে গেছে। এতে করে কৃষকদের মাঝে একটি হাহাকার সৃষ্টি হয়েছে। এবং কৃষক বড় ধরনের ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন।

এ বিষয়ে সোমবার উপজেলা কৃষি অফিসার এ.কে এম.শাহজাহান কবির বলেন, উপজেলার উপর দিয়ে ভয়ে যাওয়া কালবৈশাখী ঝড়ের সময় গরম বাতাস শুরু হয়। এতে করে যে সমস্ত জমিতে শীষ এসেছিল সেই সমস্ত জমির ধান নষ্ট হয়েছে। তিনি আরো বলেন, আমাদের উপকৃষি কর্মকর্তারা মাঠে গিয়েছেন কৃষক ভাইদের সাথে কথা বলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয় করার কাজ চলছে। তালিকা সংগ্রহ করা হলে বলা যাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ।

উল্লেখঃ কেন্দুয়া উপজেলায় চলতি বোরো মৌসুমে ১৩টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা মিলে ২০ হাজার ৭শত ৫০ হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষ করা হয়েছিল।যা গত বছরের তুলনায় বেশি জমিতে বোরোধান চাষের লক্ষ মাত্রা নির্ধারণ ছিল।

এই বিভাগের আরও সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সর্বশেষ সংবাদ

Recent Comments