Sunday, November 27, 2022
মূলপাতানেত্রকোনার সংবাদনেত্রকোনা সদর উপজেলানেত্রকোনায় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জনতা ব্যাংকের খাদ্য সহায়তা

নেত্রকোনায় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জনতা ব্যাংকের খাদ্য সহায়তা

সোহান আহমেদ:
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে নেত্রকোনায় বিভিন্ন সহায়তা থেকে বাদ পড়া গরীব ও দুস্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছে জনতা ব্যাংক।
বৃতস্পতিবার দুপুরে পৌর এলাকার ২ নং ওয়ার্ডের সাতপাই আর্দশ বালিকা বিদ্যালয় হল রুমে খাদ্য সামগ্রী বিতরণের আয়োজন করেছে নেত্রকোনা জনতা ব্যাংক লিমিটেড সাতপাই শাখা।

নেত্রকোনা জনতা ব্যাংক লিমিটেডের সহকারী মহা-ব্যবস্থাপক মো. আব্দুর রবের সভাপতিত্বে খ্যাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পৌরসভার প্যানেল মেয়র এস এম মহসীন আলম।

অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে আলোচনা শেষে করোনাকালীন সময়ে বিভিন্ন সহায়তা থেকে বাদ পড়ে যাওয়া শহরের অর্ধ শতাধিক পরিবারের মাঝে ১৫ দিনের চাল, ডাল, তেলসহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এর আগে পর্যায়ক্রমে আরো অর্ধশত পরিবারের এই খাদ্য বিতরণ করা হয়েছে যাতে কর্মহীন হয়ে যাওয়া ক্ষতিগ্রস্থ একটি পরিবার ১৫ দিন খাদ্য নিশ্চয়তা পায়। এ সময় প্রধান অতিথি বঙ্গবন্ধুর আত্মার শান্তি কামনাসহ পরিবারের এবং প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া কামনা করেন।

এসময় তিনি আরো বলেন, এভাবে প্রতিটি প্রতিষ্ঠান থেকে সবাই এগিয়ে আসলে কোন মানুষ বিপদের সময় খ্যাদ্য অনিশ্চয়তায় ভুগবে না। প্রধানমন্ত্রী বারবার সকলকে একটিই তাগাদা দিচ্ছেন যেনো যার যার অবস্থান থেকে সাধারণ মানুষের জন্য এগিয়ে আসেন সামর্থ্য বানরা।

খাদ্য বিতরণ অনুষ্টানে আয়োজিত আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, প্রধান শাখার ব্যবস্থাপক শাখাওয়াত হোসেন সিদ্দিকী, জয়নগর শাখা ব্যবস্থাপক অঞ্জন কুমার দে, সাতপাই শাখার ব্যবস্থাপক মো. মোফাখ্খারুল মাসুম, বিশিষ্ট সমাজ সেবক মুক্তিযোদ্ধা মো. রফিকুল ইসলাম, আদর্শ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লুৎফুর হায়দার ফকির, স্বাধীনতা ব্যাংকার্স পরিষদের সভাপতি ফারুকুজ্জামান ফকির, সম্পাদক মো. রুহুল আমীন সুজন, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি মো. জামাল মিয়া, সম্পাদক আনোয়রুল হকসহ ব্যাংকের বিভিন্ন শাখার নির্বাহী কর্মকর্তাগণ ও কর্মচারীবৃন্দ।

এসময় ১৫ দিনের খাদ্য সহায়তা পেয়ে খুশি হয়েছেন গ্রহীতা নারী পুরুষ। তারা জানান, বেশ কয়েকজনের বিভিন্ন কোম্পানি থেকে চাকুরি চলে গেছে। যে কারনে তারা সংসার সামলোতে চিন্তায় পড়ে গেছেন। এখন কয়েকদিন অন্তত খাবারের চিন্তা করতে হবে না। কাজের চিন্তায় থাকতে পারবেন তারা।

এই বিভাগের আরও সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

সর্বশেষ সংবাদ

Recent Comments