Sunday, March 3, 2024
মূলপাতানেত্রকোনার সংবাদনেত্রকোনা সদর উপজেলারমজান উপলক্ষে নেত্রকোনায় বাজার মনিটরিংয়ে নেমেছে জেলা প্রশাসন

রমজান উপলক্ষে নেত্রকোনায় বাজার মনিটরিংয়ে নেমেছে জেলা প্রশাসন

পবিত্র মাহে রমজানে দ্রব্য মূল্য নিয়ে সিন্ডিকেট ব্যবাসা বা মজুদ না করে সে লক্ষ্যে নেত্রকোনায় দ্রব্যমূল্যসহ আসন্ন ঈদ বাজার পরিস্থিতি মনিটরিং কার্যক্রমে নেমেছে জেলা প্রশাসন। শনিবার দুপুরে জেলা শহরে বাজার মনিটরিং কমিটিসহ টাস্কফোর্স ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণসহ সকল কমিটির সমন্বয়ে এ মনিটিরিং কার্যক্রম নেয়া হয়েছে। শহরের ছোটবাজারস্থ মেছুয়া বাজার থেকে শুরু করে পৌর সুপার মার্কেট, কাঁচা বাজার, চাল, নিত্য প্রয়োজননীয় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্দ্রণের লক্ষ্যে এ অভিযান চালায়।

পাশাপাশি নানা সময়ে অতিরিক্ত দাম রাখার অভিযোগে শহরের বড় বাজার সোনালি বস্ত্রালয়, প্রিয়াঙ্গন ও আঁচল বস্ত্র বিতানসহ একদরের দোকানগুলোতেও অভিযান চালায় প্রশাসন। এসময় প্রিয়াঙ্গনসহ আঁচলে দামের সাথে অসংগতি পরিলক্ষিত হলে আগামী সপ্তাহেই নিয়মতান্ত্রিকভাবে কাপড়ে মূল্য নির্ধারণ করার প্রতিশ্রুতি জানালে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ ছাড়াই প্রাথমিকভাবে তাদেরকে সতর্ক করে দিয়ে আসে প্রশাসন। এছাড়াও বড়বাজারস্থ এক দরের অতি মুনাফালোভী অন্যান্য দোকানগুলোতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় জেলা প্রশাসক কাজি মো. আবদুর রহমান এ মনিটরিং কার্যক্রমে নেতৃত্ব দেন।

টিমে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহমুদা আক্তার, পৌরসভার প্যানেল মেয়র এস এম মহসীন আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোরশেদা খাতুন, ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. শাহ আলম, চেম্বার অব কমার্স সভাপতি আব্দুল ওয়াহেদ, চালকল মালিক সমিতির সভাপতি এইচ আর খান পাঠান সাকিসহ জেলা প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তা ছাড়াও অন্যান্য ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ অংশ নেন।

মূলত বাজারকে অস্থিতিশীল না করতে বাজারে ন্যায্যমূল্য নিশ্চিতে এই মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার করেছে বলে জানান নেত্রকোনা জেলা প্রশাসন। এসময় ব্যবসায়ীদের সতর্ক করা হয়। ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেট কিংবা মজুদ করে মূল্যবৃদ্ধির থেকে বিরত থাকতে সতর্ক করার পাশাপাশি মূল্যের তালিকা প্রদর্শন নিশ্চিতে গুরুত্ব আরোপ করা হয়।

পবিত্র রমজান মাসে সাধারণ মানুষ যেন ন্যায্যমূল্যে ভোগ্যপণ্য কিনতে পারেন সে ব্যাপারে পুরো সময় ধরে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর নজরদারি থাকবে বলেও জানান জেলা প্রশাসক। সেইসাথে চালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য নিয়ে কেউ কোনো সিন্ডিকেট তৈরি কিংবা মজুদ করলে তার বিষয়ে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার কথা নিশ্চিত করেন তিনি। এসময় জেলা প্রশাসক কাজি মো. আবদুর রহমান আরো জানান, ব্যবসায়ীরা বাজারে কোন অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করবে বলেও আশ্বাস প্রদান করেন। কিন্তু সাধারণ জনগণ আশ^াসে নয় কার্যক্রমে বিশ^াসী থাকায় এই মনিটরিং চালু রাখার দাবী জানান।

এই বিভাগের আরও সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সর্বশেষ সংবাদ

Recent Comments