Tuesday, November 29, 2022
মূলপাতাঅন্যান্যহাওরে সাংবাদিককে প্রাণ নাশের হুমকিতে থানায় জিডি, ইউএনওর দুঃখ প্রকাশ

হাওরে সাংবাদিককে প্রাণ নাশের হুমকিতে থানায় জিডি, ইউএনওর দুঃখ প্রকাশ

হাওরাঞ্চলে হিলিপ এবং পানি উন্নয়ন বোর্ডের পিআইসির ফসল রক্ষা বাঁধের কাজের অনিয়ম দূর্নীতির সংবাদ সংগ্রহকালে পুরনো দৈনিক সংবাদ ও জনপ্রিয় গণমাধ্যম নিউজ টুয়েন্টিফোরের সাংবাদিক সোহান আহমেদকে প্রাণ নাশের হুমকির ঘটনায় থানায় জিডি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় খালিয়াজুরী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এ এইচ এম আরিফুল ইসলাম উপ¯ি’ত সাংবাদিকদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, সাংবাদিকরা দেশের সম্পদ। তাদের সাথে এই ধরনের অনাকাঙ্খিত ঘটনা যেনো খালিয়াজুরীবাসী আর কোনদিন না ঘটান সেটির জন্য আহ্বান রাখেন।

সেইসাথে এই রকম ঘটনার জন্য অভিযুক্ত ব্যাক্তিরাসহ পুরো উপজেলাবাসীকে সতর্কও করেছেন তিনি।
সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, খালিয়াজুরী দ্বীপ উপজেলাটিতে একমাত্র ফসল বুরো ধান। যেটির উপর পুরো উপজেলাবাসীসহ জেলার মানুষ নির্ভরশীল।

আর এই ফসল প্রায় বছররই বন্যায় ফসল রক্ষার বাঁধ ভেঙ্গে তলিয়ে যায়। ক্ষতিগ্র¯’ হন আপামর কৃষকসহ পুরো জেলাবাসী। যে কারণে প্রতিবছরই পাউবোর উদ্যাগে পিআইসির মাধ্যমে ফসল রক্ষা বাঁধের মেরামত কাজসহ নতুন করেও নির্মাণ কাজ চলে। তেমনি চলমান একটি গুরুত্বপূর্ণ কীর্ত্তণখলা বাঁধ। যা ভেঙ্গে ২০১৭ সনে পুরো উপজেলার পাকা ফসল ডুবে গিয়েছিলো। যার জন্য একটি ধানও তুলতে পারেননি কৃষকরা।

সেই বাঁধের কাজের ধীরগতিসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ তুলেন স্থানীয় কৃষকরা। পাশাপাশি স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের আওতাধীন হিলিপের প্রকল্প কাজেরও ব্যপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

এসব তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাক্ষাৎকার আনতে যান গত বুধবার (১০ মার্চ) নিউজ টুয়েন্টিফোরের জেলা প্রতনিধি সোহান আহমেদ কাকন।

এসময় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে উপজেলা চত্বরে সংবাদকর্মীকে লাঞ্চিত করার উদ্দেশ্যে স্থানীয় যুবলীগের আহ্বায়ক ফালাকের সমর্থক বলে পরিচিত উশৃংখল বেশ কযয়েকজন যুবক নির্বাহী অফিসার কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেয়। পরবর্তীতে নিবার্হী অফিসারের সাক্ষাৎ শেষ করে ক্যামেরা পার্সন আরিফকে নিয়ে মোটরসাইকেল যোগে হাওরের দিকে রওনা হন।

এসময় বিপরীত দিক থেকে আসা উপজেলা যুবলীগের ওৎপেতে থাকা উশৃংখল সদস্যরা ও কীর্তনখোলা ফসল রক্ষা বাঁধের পিআইসি যুবলীগ সদস্য আহাদ নূর, মোটরসাইকেল যোগে উপজেলা চত্বরে আসার পথে হঠাৎ একটি ইজিবাইককে ওভার টেকিং করে ই”ছাকৃত এবং উদ্যেশ্য প্রণোদিতভাবে সংবাদকর্মীর মোটরসাইকেলে মুখোমুখি সংঘর্ষ বাধান। এতে সাংবাদিক সোহান আহমেদ গুরুতর আহত হন। এসময় তার বাম হাতটি ভেঙ্গে যায়। তার পরেও উশৃংখল যুবকরা সংবাদকর্মীর গাড়ি ও ক্যামেরা ভাংচুরের চেষ্টা করে।

সেইসাথে “সাংবাদিকদের মেরে ফেললে কিছুই হয় না, হবেনা, তাই তোদের কেও মেরে হাওরে ফেলে রাখলে কিছুই হবে না বলে” প্রাণ নাশের হুমকি দিতে থাকে। এ ঘটনা দেখে স্থানীয়রা এগিয়ে আসেন।

স্থানীয়রা তাদেরকে শান্ত হতে বললেও বারবার ক্যামেরা পার্সনেেক মারধর করতে উদ্যত হয়ে তেরিয়ে আসে আহাদ নূর ও আরো বেশকজন। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় সংবাদকর্মীগণ দুরুত স্থান ত্যাগ করতে বাধ্য হন।

এ ঘটনায় পরদিন ১১ মার্চ থানায় লিখিত অভিযোগটি স্ক্যান করে পাঠালে তা হাতে হাতে দিয়ে আসতে হবে জানালে গত ১২ মার্চ বিকেলে সাংবাদিকের ছোটভাই পৌঁছে লিখিত অভিযোগ দিয়ে জিডি করেন।

এসময় ওসির এখানে উপস্থিত হওয়া যুবলীগ নেতা ফালাকের বড় ভাই সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবু ইছাক উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদের সহয়তায় পুলিশের সাথে ও সাংবাদিকদের সাথে দেখা করেন। ভালোমন্দ জিগেস করে বিষয়টি সুরাহা করে ফেলতে বলেন। সেইসাথে আবু ইছাক বলেন বড় বড় ঘটনাই মীমাংসা হয়ে যায়।

এই বিভাগের আরও সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

সর্বশেষ সংবাদ

Recent Comments